ডাটাবেজ

ডাটাবেজ হল কোন কম্পিউটার সিস্টেমে সঞ্চিত উপাত্ত বা রেকর্ডসমূহের একটি কাঠামোবদ্ধ সংগ্রহ। উপাত্তকে একটি উপাত্ত মডেল অনুসারে সাজিয়ে এই কাঠামোটি অর্জন করা হয়। বর্তমানে সবচেয়ে বেশি প্রচলিত উপাত্ত মডেল হল সাম্পর্কিক বা রিলেশনাল মডেল। অন্যান্য মডেল, যেমন স্তরক্রমিক বা হায়ারার্কিকাল মডেল এবং নেটওয়ার্ক মডেল, উপাত্তসমূহের মধ্যকার সম্পর্ক অপেক্ষাকৃত স্পষ্টভাবে উপস্থাপন (Explicit Representation) করে। ডাটাবেজকে (Database) অনেক সময় সংক্ষেপে DB বা db আকারে লেখা হয় ।


ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম
ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম হল সফটওয়্যার নিয়ন্ত্রিত একটি ব্যবস্থা যার মাধ্যমে ডাটাবেস পরিচালনা, তথ্যের স্থান সংকুলান, নিরাপত্তা, ব্যাকআপ, তথ্য সংগ্রহের অনুমতি ইত্যাদি নির্ধারণ করা হয়। কিছু জনপ্রিয় ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম হল ওরাকল(Oracle), এসকিউএল(SQL), এসকিউলাইট(SQLite), মাইএসকিউএল(MySQL), পোস্টজিআরই-এসকিউএল(PostgreSQL),মাইক্রোসফট এসকিউএল সার্ভার(Microsoft SQL Server ), আইবিএম ডিবি২(IBM DB2 ), মাইক্রোসফট এক্সেস(Microsoft Access),ফাইল মেকার প্রো(File Maker Pro)।সাধারণত একটি ডাটাবেস বিভিন্ন রকমের ডাটাবেস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে ব্যবহার করা যায়না তবে এসকিউএল সহ কিছু স্ট্যান্ডার্ড ব্যবহার করে একই অ্যাপ্লিকেশনে বিভিন্ন সিস্টেম একসাথে ব্যবহার করা যায়।

ব্যবহার

ডাটাবেজ ব্যবহৃত হয় আভ্যন্তরীন কার্যক্রম পরিচালনা সমর্থনের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর্তৃক এবং অনলাইনে ক্রেতা এবং সরবরাহকারীদের সাথে সম্পর্ক তৈরীর উদ্দেশ্যে।

ডাটাবেজে প্রসাশনিক তথ্য এবং বিশেষায়িত ডাটা থাকে যেমন ইঞ্জিনিয়ারিং ডাটা অথবা অর্থনৈতিক মডেলসমূহ। ডাটাবেজের ব্যবহারের উদাহরণ হল কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত ও পরিচালিত লাইব্রেরি ব্যবস্থা, ফ্লাইট সংরক্ষণ ব্যবস্থা এবং পার্টস ইনভেন্টরি সিস্টেম।ব্যাংকিং-এ ক্রেতা, একাউন্ট, ঋণ ,ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ক্রয়, লেনদেন ও মাসিক বিবরণী প্রস্তুুত এবং লেনদেনের বিপুল তথ্যের প্রক্রিয়াকরণের জন্য ডাটাবেজ ব্যবহৃত হয়।

/